+880-2-9121205-06
info@cknfeeds.com

টুইন স্ক্রু নাকি সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডার বনাম আপনার সিদ্ধান্ত

সাম্প্রতিক কালে বাংলাদেশের ফিড ইন্ডাস্ট্রিতে ভাসমান মাছের খাবারের চাহিদা বেড়েই চলেছে। প্রায় প্রতিদিনই আমরা আলোচনা করছি বিভিন্ন কোম্পানী  বা নতুন উদ্যোক্তাদের সাথে। টুইন স্ক্রু এবং সিঙ্গেল স্ক্রুর মধ্যে কোনটা ভালো বা কোনটা ভালোনা এই নিয়ে অনেকের মধ্যেই সঠিক কোন ধারনা নেই। বুঝে না বুঝে অনেকেই সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন টুইন স্ক্রু অথবা সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডারের। আমাদের এই আলোচনার উদ্দেশ্য টুইন স্ক্রু বা সিঙ্গেল স্ক্রু কেন এবং কোন জাতীয় খাদ্যের জন্য প্রয়োজন তা সবার কাছে পরিস্কার করে তুলে ধরা।

অনেকে মনে করেন একই মেশিনে খুব ছোট বা খুব বড় মাপের মাছের ভাসমান খাদ্য তৈরির জন্য টুইন স্ক্রু  এক্সট্রুডার প্রয়োজন। এটি ঠিক যে  টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার থেকে খুব ছোট থেকে খুব বড় মাপের খাবার তৈরি করা সম্ভব। তবে বড় মাপের ফিড তৈরি করার ক্ষেত্রে টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার ব্যবহার মোটেও  লাভজনক হবেনা। এই  এক্সট্রুডার দিয়ে শুধুমাত্র ছোট মাপের মাছের  ভাসমান খাবার যেমন Ø০.৬ মি.মি, Ø০.৮ মি.মি, Ø১.০ মি.মি, Ø১.৫ মি.মি  খাদ্য উৎপাদন লাভজনক কারন এই সমস্ত খাদ্যের বাজার মূল্য অনেক বেশি। টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার দিয়ে  বড় মাপের  খাদ্য উৎপাদন করলে অচীরেই  আপনাদের চোখে পড়বে যে উৎপাদন ব্যয় অনেক বেশি যা বাজার মূল্যকে ছাড়িয়ে যাবে।

এই উৎপাদন মূল্য বৃদ্ধির মূল কারন হলো কনজিউমেবল এবং স্পেয়ার পার্টস, বাষ্প এবং বিদ্যুৎ খরচ। এক্সট্রুডারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন অংশ হলো স্ক্রু এবং ব্যারেল।এই স্ক্রু এবং ব্যারেলের একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা থাকে যা এই সময়সীমার পরেই পরিবর্তন করতে হয়।সিঙ্গেল স্ক্রুর তুলনায় টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডারের এই পরিমান দ্বিগুন।তাই টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডারে বড় মাপের ভাসমান মাছের খাদ্য তৈরি করলে কখনোই লাভবান হওয়া যাবেনা।

টুইন স্ক্রু বা সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডার কেনার আগে নিম্নলিখিত  বিষয়গুলো সম্পর্কে আপনার স্বচ্ছ ধারনা থাকা দরকারঃ

১. কোন কোন মাপের খাদ্য তৈরি করা হবে

২. বিভিন্ন মাপের খাদ্যভেদে বাজারে খাদ্যের চাহিদা

৩. বিভিন্ন মাপের খাদ্যভেদে বাজারে খাদ্যের মূল্য

৪. সিঙ্গেল স্ক্রু এবং টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডারের রক্ষনাবেক্ষন এবং খুচরা যন্ত্রাংশের মূল্য

৫. স্ক্রু বা ব্যারেলের স্থায়ীত্ব সময়সীমা, ইত্যাদি

প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানী হিসেবে আমরা আমাদের সেবা গ্রহনকারীদের সঠিক পরামর্শ দেওয়ার চেষ্টা করি।একটি প্রজেক্টের ১০ বছর মেইন্টেন্যান্স, রিপেয়ারিং বা কনজিউমেবল হিসাব করলে দেখা যাবে সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডার দিয়ে বড় মাপের খাদ্য তৈরি  অনেক বেশি লাভজনক। শুধুমাত্র ছোট মাপের খাদ্য তৈরিতে টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার ব্যবহার করা উচিৎ। টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার দিয়ে ছোট বড় সব মাপের খাদ্য বানাতে গেলে যত বেশি লাভ ততবেশি ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। অন্যদিকে সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডার দিয়ে বড় মাপের খাদ্য উৎপাদন  এবং টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার দিয়ে ছোট মাপের খাদ্য উৎপাদন হবে সবচেয়ে লাভজনক।

টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডারঃ  Ø০.৬ মি.মি, Ø০.৮মি.মি, Ø১.০ মি.মি, এবং Ø১.৫ মি.মি.

সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডারঃ  Ø২.০ মি.মি, Ø২.৫ মি.মি, Ø৩.০ মি.মি, Ø৪.০ মি.মি, Ø৫.০ মি.মি এবং উপরে।

এখানে উল্লেখ্য যে আপনার যদি ভালোমানের সিঙ্গেল স্ক্রু এক্সট্রুডার থাকে তাহলে সেটা দিয়েও Ø১.৫ মি.মি. বা Ø১.০ মি.মি মাপের খাদ্য তৈরি করতে পারবেন। তবে উৎপাদন হার অপেক্ষাকৃত কমে যাবে।

পরামর্শঃ

১. Ø১.০ মি.মি –এর নিচে আপনার চাহিাদা থাকলে সিঙ্গেল স্ক্রু ব্যবহার করা লাভজনক।

২. যদি খুব ছোট মাপের খাদ্য যেমন Ø০.৬ মি.মি, Ø০.৮ মি.মি তৈরি করতে হয় সেক্ষেত্রে টুইন স্ক্রু এক্সট্রুডার লাভজনক ।

৩. একই মেশিনে  খুব ছোট থেকে বড় মাপের খাদ্য তৈরি না করা উত্তম কারন ভবিষ্যতে অতিরিক্ত রক্ষনাবেক্ষন এবং খুচরা যন্ত্রাংশের মুল্যের কারনে ক্রমশঃ অলাভজনক হয়ে পড়বে।